৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ| ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি| বিকাল ৩:০৫| গ্রীষ্মকাল|
শিরোনাম:
তাড়াইলে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার জাকিরুল ইসলাম উসাইদের ঈদ উপহার বিতরন চট্টগ্রামে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে শ্রমিকদের কর্মবিরতি পাইকগাছায় ভূমিসেবা কার্যক্রম পরিদর্শন উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের শ্রদ্ধা নিবেদন গণমাধ্যমে হলুদ সাংবাদিকতা প্রতিরোধ ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি মনিরুল, সম্পাদক আনোয়ার ঈশ্বরগঞ্জে স্মার্ট ভূমি সেবায় সন্তুষ্ট সেবাগ্রহীতারা পাইকগাছায় চিংড়ি প্রতীকের দুই কর্মীর উপর হামলার ঘটনায় একজনের কারাদণ্ড নোবিপ্রবিতে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত

মনোহরদীতে পুত্রবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা অভিযোগে শ্বশুর গ্রেপ্তার, মামলা প্রত্যাহার করতে হুমকি

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২৪,
  • 42 Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নরসিংদীর মনোহরদীতে শ্বশুরের বিরুদ্ধে পুত্রবধূকে (২০) ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে শ্বশুর মমতাজ উদ্দিনকে (৫২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পরবর্তীতে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়চাপা ইউনিয়নের বীর মাইজদিয়া গ্রামে। ঘটনার পর থেকে ভুক্তভোগী ও তার বাবা-মাকে মামলা উঠিয়ে নিতে বিভিন্নভাবে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, ১০ মাস আগে বীর মাইজদিয়া গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের ছেলে রুহুল আমিনের সঙ্গে ভুক্তভোগীর বিয়ে হয়। কিছুদিন পর স্ত্রীকে বাড়িতে রেখে রুহুল আমিন সৌদি আরব চলে যান।

১৫ দিন আগে রুহুল আমিনের বাবা (ভুক্তভোগীর শ্বশুর) মমতাজ উদ্দিন সৌদি আরব থেকে বাড়িতে আসেন। এরপর থেকেই পুত্রবধূকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দিতে থাকেন। বিষয়টি টের পেয়ে পুত্রবধূ কৌশলে শ্বশুরকে এড়িয়ে চলতেন।

এক পর্যায়ে বিরক্ত হয়ে মুঠোফোনে তার মাকে ঘটনা জানান।
গত ৪ ফেব্রুয়ারী দুপুরে রান্না ঘরে কাজ করছিল পুত্রবধূ।

এসময় স্ত্রী (ভুক্তভোগীর শ্বাশুড়ি) বাড়িতে না থাকার সুযোগে পুত্রবধূর মুখ চেপে ধরে গোসলখানায় নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এসময় গৃহবধূর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তাঁকে ছেড়ে দেন শ্বশুর মমতাজ। ধস্তাধস্তিতে গৃহবধূর স্পর্শকাতর ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়।

ঘটনা শুনে গৃহবধূর মা শ্বশুর বাড়ি থেকে তাঁকে উদ্ধার করে মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। পরে সেখান থেকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার রাতেই ভুক্তভোগীর মায়ের দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত শ্বশুর মমতাজ উদ্দিনকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

ভুক্তভোগী ও তাঁর মা সাংবাদিকদের জানান, মমতাজ উদ্দিনকে গ্রেপ্তারের পর থেকে মামলা উঠিয়ে নেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন শ্বাশুড়ি, ননদ ও তাদের স্বজনরা। মামলা প্রত্যাহার না করলে স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেন গৃহবধূর স্বামী রুহুল আমিন।

অভিযুক্ত মমতাজ উদ্দিনের স্ত্রী নূরজাহান বলেন, ওই ঘটনা সম্পূর্ণ সাজানো। পুত্রবধূকে শাসন করার কারণে আমার স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভূঁইয়া জানান, ভুক্তভোগীর অভিযোগ পেয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ঘটনার রাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভুক্তভোগীর পরিবারের কাউকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরি অন্যান্য নিউজ